default-image

রাজবাড়ী জেলা ছাত্রলীগের এক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার দিবাগত রাতে জেলা শহরের বেড়াডাঙ্গা এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর নাম নাহিদুল আলম ওরফে রাজু (২৮)। তিনি জেলা ছাত্রলীগের ১ নম্বর সহসভাপতি।

পুলিশ সূত্র জানায়, ২০১৭ সালে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে শহরের বেড়াডাঙ্গা এলাকার জিসান নামে ছাত্রলীগের এক নেতাকে হত্যাচেষ্টার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হওয়া মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত পলাতক আসামি ছাত্রলীগের নেতা নাহিদুল আলম। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে তাঁকে তাঁদের বাড়ির সামনে থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এরশাদ বলেন, ‘নাহিদুল আলম ও জিসান ছাত্রলীগের রাজনীতি করেন। নাহিদুল আলম জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি। উভয়ের মধ্যে মারামারির ঘটনায় মামলা হয়েছিল। তবে পরে মীমাংসা হয়ে গেছে। আজ তাঁকে আদালতে তোলা হলে তাঁর জামিন হয়ে যাবে বলে আমরা আশা করছি।’

ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) বদিয়ার রহমান জানান, নাহিদুল আলম জিসান হত্যাচেষ্টায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি। তাঁকে সোমবার রাতে গ্রেপ্তারের রাজবাড়ী সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ছাড়া নাহিদুলের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি নাছির হত্যার মামলাও রয়েছে।

রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, জিসান হত্যাচেষ্টা মামলায় নাহিদুল আলমকে আজ মঙ্গলবার রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য পড়ুন 0