default-image

রাজশাহীতে ‘অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ’ খেয়ে এক চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে বলে তাঁর মৃত্যুসনদে উল্লেখ আছে। আজ সোমবার ভোর পৌনে ৫টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ময়নাতদন্ত শেষে তাঁর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ওই চিকিৎসকের নাম লুৎফর রহমান (২৭)। তিনি রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার ভবানীপুর এলাকার বাসিন্দা। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস ৫৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। ছাত্রাবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের নেতা ছিলেন। বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে হেপাটোলজি বিষয়ে এফসিপিএস করছিলেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গেছে, আজ ভোর ৪টার পর লুৎফর রহমানকে অচেতন অবস্থায় গ্রামের বাড়ি থেকে হাসপাতালে নেন তাঁর স্বজনেরা। ওই সময় অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ সেবনে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে তাঁর পরিবারের সদস্যরা চিকিৎসকদের জানান। জরুরি বিভাগ থেকে দ্রুত তাঁকে হাসপাতালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর পৌনে ৫টার দিকে তিনি মারা যান। তাঁর মৃত্যুসনদে মৃত্যুর প্রাথমিক কারণ হিসেবে অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খাওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

হাসপাতালের পরিচালক সাইফুল ফেরদৌস বলেন, অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খাওয়ায় লুৎফর রহমানকে তাঁর স্বজনেরা হাসপাতালে আনেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন এলে মৃত্যুর কারণ বলা যাবে।

নগরের রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাজহারুল ইসলাম বলেন, ময়নাতদন্তের পর আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন