default-image

রাজশাহী নগরে স্থানভেদে ১ থেকে ২ টাকা করে অটোরিকশার ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার থেকে তা কার্যকর হচ্ছে। গতকাল সোমবার রাতে সিটি করপোরেশন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে সংবাদ সম্মেলন করে নতুন বছরের জানুয়ারিতে অটোরিকশা ভাড়া বাড়ানোর একক সিদ্ধান্ত নেয় রাজশাহী মহানগর ইজিবাইক মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতি। জানুয়ারিতে সেই ভাড়া দুই দিন কার্যকর করার চেষ্টাও করেছিলেন অটোরিকশার চালকেরা। তবে সিটি করপোরেশন তা বন্ধ করে দেয়। পরে ৭ ফেব্রুয়ারি হঠাৎ এক দুপুরে অটোরিকশা বন্ধ করে ভাড়া বাড়ানোসহ কয়েক দফা দাবি বাস্তবায়নে আন্দোলনে নামেন অটোরিকশার চালকেরা। ওই দিন অটোরিকশা বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হয় নগরের বাসিন্দাদের। সেদিনই দুপুরে নগর ভবনে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে ভাড়া বাড়ানোর ঘোষণা দেন।

বিজ্ঞাপন

ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি নিশ্চিত করে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ সরিফুল ইসলাম বলেন, ৭ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের ঘোষণা অনুযায়ী রাজশাহী নগরে চলাচলকারী অটোরিকশার ভাড়া পুনঃনির্ধারণ করেছে সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। পুনঃনির্ধারণকৃত ভাড়া আজ মঙ্গলবার থেকে কার্যকর হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, অটোরিকশা মালিক/চালকদের রাজশাহী সিটি করপোরেশনের রাজস্ব বিভাগ থেকে যথাযথ কর্তৃপক্ষ স্বাক্ষরিত ভাড়ার তালিকা সংগ্রহ করে অটোরিকশায় ১৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রদর্শন করতে হবে। রুট ভেদে ১ থেকে সর্বোচ্চ ২ টাকা ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। সর্বনিম্ন ভাড়া ৫ টাকা আগের মতো বহাল থাকবে। ৭ টাকার ভাড়া ৮ টাকা, ১০ টাকার ভাড়া ১২ টাকা, ১৫ টাকার ভাড়া ১৭ টাকা করা হয়েছে।

রাজশাহী মহানগর ইজিবাইক মালিক-শ্রমিক সমবায় সমিতির সভাপতি শরিফুল ইসলাম বলেন, ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্তকে তাঁরা স্বাগত জানাচ্ছেন। এতে করে কিছুটা হলেও অটোরিকশাচালকেরা স্বস্তি পাবেন এবং যাত্রীদেরও এক-দুই টাকা ভাড়া বেশি হলে তা বোঝা হবে না। তবে করোনার কথা মাথায় রেখে এই ভাড়া আরও আগে বাড়ানো প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন