বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নওরোজ আফরিন ছোটপোদ্দার বাড়ির প্রবাসী ইসমাইল হোসেনের একমাত্র মেয়ে। তাঁর স্বামী হৃদয় চৌধুরীর বাড়ি কুমিল্লায়। সেখানে তিনি চাকরি করেন। অহনা নামের দুই বছরের একটি সন্তান রয়েছে তাঁদের।

নওরোজের পরিবারের বরাত দিয়ে শাহরাস্তি থানা–পুলিশ জানায়, ঘটনার সময় বাড়িতে কেউ ছিল না। নওরোজের মেয়ে অসুস্থ থাকায় তার জন্য ওষুধ আনতে পাশের বাড়িতে স্থানীয় পল্লিচিকিৎসকের কাছে যান নওরোজের মা। বাড়ি এসে নওরোজের লাশ তাঁর শয়নকক্ষের বিছানায় রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তাঁর মা। কে বা কারা এ ঘটনা ঘটেছে, তা পরিবারের কেউ বলতে পারছেন না।

শাহরাস্তি থানার ওসি আবদুল মান্নান বৃহস্পতিবার রাতে বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি এবং বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত করতে পুলিশের কয়েকটি দল ঘটনাস্থলে রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন