বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রূপপুর পুলিশ ফাঁড়ি সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাত ১১টার দিকে প্রায় ১০ টন লোহা নিয়ে একটি ট্রাক প্রকল্প এলাকা থেকে বাইরে বের হয়ে যাচ্ছিল। এ সময় প্রকল্পের নিরাপত্তাকর্মীরা ওই ট্রাক আটকে লোহা বাইরে নিয়ে যাওয়ার অনুমতিপত্র দেখতে চান। এ সময় ওই ট্রাকের চালক আবুল কালাম আজাদ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে তাঁকে নিরাপত্তাকর্মীরা আটক করেন। এ সময় তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি লোহা চুরির সঙ্গে জড়িত চারজনের নাম বলেন। ওই চারজন প্রকল্প এলাকার পাশেই ছিলেন। পরে প্রকল্পের নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁদের আটক ও ট্রাকটি জব্দ করে থানায় হস্তান্তর করেন।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, রূপপুর প্রকল্পে সেনাসদস্য, বিজিবি, পুলিশ, আনসারসহ চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা রয়েছে। এর মধ্যে ট্রাকযোগে লোহাগুলো চুরি করে বাইরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। দায়িত্বরত সেনাসদস্যরা তাঁদের আটক করে থানায় হস্তান্তর করেছেন।

ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, আটক ব্যক্তিদের থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। কীভাবে এত লোহা প্রকল্প থেকে বের করা হলো, সেটি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রকল্প কর্তৃপক্ষ থেকে একটি এজাহার দেওয়ার কথা রয়েছে। এজাহার পেলে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে পাকশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি শিমুল মল্লিক আটক ছাত্রলীগ নেতার দলীয় পরিচয় নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মিরাজ আলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে তিনি কোনো দায়িত্বে নেই। এরপরও আটক নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁর বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন