বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম বলেন, দ্রব্যের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। দ্রব্যমূল্যের লাগাম টেনে ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে আনা হোক, তা মানুষের প্রাণের দাবি। কিন্তু মানুষ মুখ ফুটে সেটি বলতে পারছেন না। দেশে করোনার চেয়েও ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি। মধ্যবিত্ত, নিম্নবিত্ত মানুষ আধপেটা খেয়ে না খেয়ে দিন যাপন করছেন। কাউকে বলতে পারছেন না।

তরিকুল ইসলাম আরও বলেন, বাণিজ্যমন্ত্রী বলছেন, সরকারের কিছু করার নেই; পরিকল্পনামন্ত্রী বলছেন, কচুরিপানা খান; এক মন্ত্রী বলছেন, কম খান; আরেক মন্ত্রী বলছেন, বাজারে কম যান। মন্ত্রীরা আবোলতাবোল বকছেন। কিন্তু দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি অব্যাহত রয়েছে, তা কোথায় গিয়ে ঠেকবে, মানুষ জানে না।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রমজানের আগে দ্রুত পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে আনতে হবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ানোর সঙ্গে জড়িত সিন্ডিকেট ও অসাধু ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় আনতে হবে। গরিব-অসহায় ব্যক্তিদের মধ্যে রেশন কার্ড চালুসহ গ্যাস ও পানির দাম কমানোর দাবি করেছেন তাঁরা।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন