default-image

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় যাত্রীবাহী লঞ্চের ছাদে খেলতে গিয়ে নদীতে পড়ে নিখোঁজ হওয়া শিশু মো. হৃদয়ের (১০) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে সোনাদিয়া ইউনিয়নের চরচেঙ্গার খাল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। হৃদয় উপজেলার তমরদ্দি ইউনিয়নের ১ নম্বর ক্ষিরোদিয়া গ্রামের মৃত রফিক উদ্দিনের ছেলে।

সোমবার বেলা ১১টায় হাতিয়ার তমরদ্দি লঞ্চঘাটে এমভি ফারহান-৩ যাত্রীবাহী লঞ্চের ছাদ থেকে নদীতে পড়ে গিয়েছিল ওই শিশু। সঙ্গে সঙ্গে ঘাটের শ্রমিকেরা নদীতে নেমে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে উদ্ধার করা যায়নি। একপর্যায়ে ফায়ার সার্ভিস ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা খবর পেয়ে ঘাটে এসে উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। পাশাপাশি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। কিন্তু রাত আটটা পর্যন্ত দুই বাহিনীর কেউই শিশুটিকে উদ্ধার করতে পারেনি।

কোস্টগার্ডের হাতিয়া স্টেশনের কমান্ডার বিশ্বজিত বড়ুয়া প্রথম আলোকে বলেন, মঙ্গলবার সকাল থেকে পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু করে হাতিয়া কোস্টগার্ড। দিনভর অভিযান শেষে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে সোনাদিয়া ইউনিয়নের চরচেঙ্গার খালে লাশটি পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে, নদীতে জোয়ার-ভাটার টানে লাশটি ওই এলাকায় চলে গেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0