default-image

করোনাভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে কুমিল্লার লাকসাম উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ স্কাউটের লাকসাম উপজেলা শাখার কোষাধ্যক্ষ মো. ফখরুল ইসলামের (৫৯) মৃত্যু হয়েছে। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ক্যাম্পাসে স্থাপিত কোভিড হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউতে) চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার ভোরে তিনি মারা যান।

ফখরুল ইসলাম জালাল মেমোরিয়াল উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। তিনি লাকসাম উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদকও ছিলেন। তিনি মা, স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, কয়েক দিন ধরে তিনি জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট ও গলাব্যথায় ভুগছিলেন। একপর্যায়ে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। পরে গত ১৯ অক্টোবর তাঁকে কুমিল্লা কোভিড হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয়। সেখানে অবস্থার আরও অবনতি হয়। এরপর তাঁকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করানো হয়। সেখানে রোববার ভোরে তিনি মারা যান। রোববার বিকেলে লাকসামের মুদাফফরগঞ্জ দক্ষিণ উপজেলার চিতোষী গ্রামের জালাল মেমোরিয়াল উচ্চবিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে তাঁকে লক্ষ্মীপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে দাফন করা হয়।

ফখরুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী (এলজিআরডি) মো. তাজুল ইসলাম, লাকসাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইউনুছ ভূঁইয়া, পৌর মেয়র আবুল খায়ের, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি (দুপ্রক) সভাপতি মো. আবদুল কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক আওরঙ্গজেব খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি তপন চন্দ্র সাহা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0