বিজ্ঞাপন

শিক্ষার্থীরা কর্মসূচিতে বলেন, করোনার কারণে দীর্ঘ ১৪ মাস ধরে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এ সময়ে করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন শিক্ষার্থীরা। লেখাপড়ার ধারা থেকে শিক্ষার্থীরা ছিটকে পড়ছেন। অনেকে মানসিকভাবে হতাশায় ভুগছেন। এভাবে দীর্ঘদিন স্কুল–কলেজ–বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রেখে শিক্ষাকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু একই সময়ে আর সবকিছু চালু রয়েছে। সরকারের এই দ্বৈতনীতি অগ্রহণযোগ্য ও প্রহসনের।

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, করোনার মধ্যে অনলাইন ক্লাসের নাম করে একধরনের বৈষম্য তৈরি করা হয়েছে। এ ক্লাসে খুব কমসংখ্যক শিক্ষার্থী অংশ নিতে পেরেছেন। অনেকের সক্ষমতা নেই কিংবা এলাকাভিত্তিক ইন্টারনেট দুর্বলতা রয়েছে। তাই শিক্ষাকে বাঁচাতে দ্রুত টিকা দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আহ্বান জানানো হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন