বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্র জানায়, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের পাশে স্থানীয় রালবাগ এলাকায় গতকাল দিবাগত রাত একটার দিকে ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক মনিরুজ্জামানকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে স্থানীয় লোকজনের উদ্যোগে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল রাত আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ নম্বর ফটকের সামনে শিক্ষার্থী পরাগকে তিনজন তরুণ পথরোধ করে। এরপর তারা তাঁকে কুপিয়ে তাঁর কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

জানা যায়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জেন্ডার অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের দশম ব্যাচের শিক্ষার্থী পরাগ মাহমুদ পার্ক মোড় একলার একটি ছাত্রাবাস থেকে সর্দরপাড়া এলাকায় তাঁর এক বন্ধুর ছাত্রাবাসে যাওয়ার পথে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তাঁর চিৎকারে আশপাশের ছাত্রাবাস থেকে কিছু শিক্ষার্থী এগিয়ে এলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রব্বানীকে জানানো হয়েছে। প্রক্টরের সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে রাতেই তাঁকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রব্বানী বলেন, ‘কয়েকজন ছিনতাইকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে তার মুঠোফোন ও কিছুটা ছিনিয়ে নেয়। আমি রাত সাড়ে তিনটার সময় ওই শিক্ষার্থীকে মেডিকেলে দেখতে যাই। বর্তমানে শিক্ষার্থী রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন