default-image

খেলতে গিয়ে আস্ত তালা গিলে ফেলে জিসান ইসলাম নামে দেড় বছরের এক শিশু। তালাটি গলায় আটকে গেলে চিৎকার করে কান্না শুরু করে সে। এরপর পরিবারের সদস্যরা তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অস্ত্রোপচার করে চিকিৎসকেরা গলার ভেতর থেকে তালা বের করেন। জিসান আপাতত শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।
শিশুটির বাবার নাম সিদ্দিকুর রহমান। তাদের বাড়ি কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার তালবাড়িয়া ইউনিয়নের চারুলিয়া গ্রামে।  

বিজ্ঞাপন

শিশুটি এখন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) তাপস কুমার সরকার প্রথম আলোকে বলেন, শিশুটি শঙ্কামুক্ত। তবে তাকে কয়েক দিন হাসপাতালে ভর্তি থাকা লাগবে।
শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে বাড়িতে ঘরের ভেতর শিশুটি এক ইঞ্চি সাইজের ছোট্ট একটি তালা নিয়ে খেলছিল। খেলতে খেলতে তালাটি মুখে দিয়ে দেয় সে। একপর্যায়ে সেটি তার গলার ভেতর চলে যায়। শিশুটি কান্না শুরু করলে পরিবারের সদস্যরা তাকে দ্রুত হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যায়।
কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল সূত্র জানায়, বেলা ১১টার দিকে জরুরি বিভাগে শিশুর গলায় তালা আটকে আছে বলে নিয়ে আসে তার পরিবারের সদস্যরা। এ সময় দ্রুত তাকে হাসপাতালের অস্ত্রোপচার কক্ষে নেওয়া হয়। সেখানে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ ইমামুল হক, শিশু বিশেষজ্ঞ (সার্জারি) মনিরুজ্জামানসহ সাত-আটজনের একটি চিকিৎসক দল শিশুটির গলায় অস্ত্রোপচার করেন।

বিজ্ঞাপন

আরএমও তাপস কুমার সরকার বলেন, অস্ত্রোপচার কক্ষে শিশুটিকে প্রায় এক ঘণ্টা রাখা হয়। তবে মাত্র পাঁচ মিনিটে তালাটি গলা থেকে বের করা হয়। শিশুটি আপাতত বিপদমুক্ত। তবে হাসপাতালে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, বাড়িতে শিশুদের খেলনা দিয়ে খেলা করানোর সময় খুবই সতর্ক থাকা দরকার। ছোট আকারের কিছু দিয়ে খেলতে দেওয়া একেবারেই ঠিক না। তা না হলে এ রকম দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থাকে।

মন্তব্য পড়ুন 0