বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জিবরাইল হোসেন গোসল করার জন্য লুঙ্গি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ। পরে স্বজনেরা খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর সন্ধান পাননি। আজ সকালে স্থানীয় লোকজন কাজির মৎস্য খামারের পুকুরে জিবরাইলের লাশ ভাসতে দেখেন। খবর পেয়ে শ্রীবরদী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁর লাশ উদ্ধার করে। এ সময় পুকুরের পাশের একটি আমগাছ থেকে তাঁর লুঙ্গিটি উদ্ধার করা হয়।

শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা হয়েছে। পুলিশের সুরতহাল প্রতিবেদনে লাশে আঘাতের কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, গোসল করতে নেমে হৃদ্‌যন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে জিবরাইলের মৃত্যু হতে পারে। নিহত জিবরাইলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আইনানুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন