বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০১১ সালে মধ্যপাড়া-ভবানীপুর রেলপথের ৭০টি স্লিপার চুরি হওয়ার পর থেকে এ পথে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এর পর থেকে সড়কপথে ট্রাকে করে পাথর পরিবহন করা হয়। এই সুযোগে মধ্যপাড়া খনি এলাকায় ট্রাকশ্রমিকদের চারটি সংগঠন গড়ে উঠেছে। সিন্ডিকেটের অভিযোগের প্রসঙ্গে কথা হয় মধ্যপাড়া ট্রাক বন্দোবস্তকারী শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের সঙ্গে। তিনি দাবি করেন, এখানে চারটি সংগঠন কাজ করে। কিন্তু কেউই সিন্ডিকেট প্রথায় বিশ্বাসী নয়—এমন অভিযোগ সঠিক নয়।

খনির পাথর বিপণনে অনুমোদিত ডিলার সৈয়দপুরের ইকু এন্টারপ্রাইজের আলমগীর হোসেন বলেন, যেহেতু সড়কে খরচ বাড়ছে, তাই এর প্রভাব পড়ছে পাথরের ওপর। পাথরের দাম বাড়ছে। নির্মাণকাজেও বাড়ছে খরচ।

মধ্যপাড়া পাথর খনির উপমহাব্যবস্থাপক (নিরীক্ষা) শামসুল মোস্তফা জানান, রেলপথে পরিবহনে প্রতি টনে খরচ হয় ৬০০ টাকা। সমপরিমাণ পাথর সড়কপথে পরিবহনে খরচ হয় ১ হাজার ১০০ টাকা। এতে দীর্ঘ ১০ বছরে পাথর পরিবহন খাতে ব্যাপক আর্থিক অপচয় হয়েছে।

পেট্রোবাংলার মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের সূত্র জানায়, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী খনির ৮০ ভাগ পাথর রেলপথে পরিবহন করতে হবে। কিন্তু ওই নির্দেশনা কাজে আসছে না। কারণ, ২০১১ সালে দিনাজপুরের পার্বতীপুরের ভবানীপুর থেকে মধ্যপাড়া খনি পর্যন্ত রেলপথের জায়গায় জায়গায় ৭০টি স্লিপার (পাটাতন) চুরি যায়। এর পর থেকে বন্ধ হয়ে যায় ওই পথে পাথরবাহী ওয়াগন চলাচল।

সংস্কারের দায়িত্ব কার

১৪ কিলোমিটার রেলপথটি সংস্কার করতে রেল কর্তৃপক্ষের চাওয়া খনি কর্তৃপক্ষই এর খরচ বহন করুক। এর কারণ হিসেবে রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী (সিএমই) মুহাম্মদ কুদরত ই খুদা বলেন, রেলপথের বেশির ভাগ অংশই খনি এলাকার ভেতরে। খনি কর্তৃপক্ষ খরচ বহন করলে অতি দ্রুত রেলপথটি সংস্কার করা যাবে।

রেলওয়ের পূর্ত বিভাগের ঊর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী তৌহিদুল ইসলাম জানান, রেলপথে স্লিপার, ফিটিংস, পাথর কিছুই নেই। এ অবস্থায় মেরামতে সম্ভাব্য খরচ হবে প্রায় ৩০ কোটি টাকা। পাশাপাশি পাথর পরিবহন উপযোগী আরও চার সেট ওয়াগন প্রয়োজন।

এ বিষয়ে কথা হয় মধ্যপাড়া পাথর খনির ব্যবস্থাপনা পর্যায়ের এক কর্মকর্তার সঙ্গে। তবে তিনি নাম প্রকাশ করতে চাননি। তিনি জানান, রেলপথ সংস্কারে খনি কর্তৃপক্ষের খরচ বহনের কোনো চিন্তা আপাতত নেই। সড়কপথে পরিবহন সিন্ডিকেট দূর করা গেলে পাথর পরিবহনের খরচ হয়তো কমবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন