default-image

গত কয়েকটি মৌসুমে ঠাকুরগাঁওয়ে গমের ভালো ফলন হয়েছে। আবাদ ও উৎপাদনের দিক থেকে ঠাকুরগাঁও এখন দেশের সর্বোচ্চ গম উৎপাদনকারী জেলা। সরকারও এবার এ জেলা থেকে গম কিনছে সর্বাধিক। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, এটা এ অঞ্চলের কৃষি ও কৃষকের জন্য ভালো খবর।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আবাদ ও উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা বিভাজন সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে দেশে ৩ লাখ ৪২ হাজার ২৫২ হেক্টর জমিতে গমের আবাদ হয়েছিল। হেক্টরপ্রতি উৎপাদিত হয়েছিল ৩ দশমিক ৬৪ মেট্রিক টন। সে হিসাবে উৎপাদিত হয় ১২ লাখ ৪৬ হাজার ৩৩২ মেট্রিক টন। আর ঠাকুরগাঁওয়ে ৫০ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে গমের আবাদ হয়ে ১ লাখ ৮৯ হাজার ৯৩৮ মেট্রিক টন গম উৎপাদিত হয়।

চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে দেশে ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৩৬৪ হেক্টর জমিতে গম আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। প্রতি হেক্টরে ৩ দশমিক ৬৫ মেট্রিক টন ধরে ১২ লাখ ৯৮ হাজার ৭৫৩ মেট্রিক টন গম উৎপাদিত হবে বলে ধারণা করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

বিজ্ঞাপন
এখানে গম আবাদে কৃষকের আগ্রহ কমেনি। আমরা গম আবাদে শীর্ষস্থানটি ধরে রাখতে চাই।
আবু হোসেন, উপপরিচালক, ঠাকুরগাঁও জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ওই তথ্যে চলতি মৌসুমে ঠাকুরগাঁওয়ে ৫০ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে গম আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়। উৎপাদিত ১ লাখ ৮৯ হাজার ৯৩৮ মেট্রিক টন।

তবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ঠাকুরগাঁও কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলায় ৫০ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে গম আবাদ লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও আবাদ হয়েছে ৪৭ হাজার ৪৫০ হেক্টর জমিতে। গম উৎপাদিত হয়েছে ১ লাখ ৯৪ হাজার ১৮৪ মেট্রিক টন। আবাদ ও উৎপাদনের দিক থেকে যা দেশের সর্বোচ্চ।

এদিকে চলতি বছরে দেশে প্রতি কেজি ২৮ টাকা দরে এক লাখ মেট্রিক টন গম কেনার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ১ এপ্রিল থেকে সারা দেশে গম কেনা শুরু করেছে খাদ্য বিভাগ। এ কার্যক্রম চলবে ৩০ জুন পর্যন্ত।

খাদ্য অধিদপ্তরের উপজেলাভিত্তিক গম সংগ্রহের বিভাজনের তথ্যতে দেখা যায়, এ বছর ঠাকুরগাঁও জেলা থেকে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার ৭৬৫ মেট্রিক টন গম কেনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। পাবনা থেকে ৭ হাজার ৬৮৪, রাজশাহী থেকে ৭ হাজার ৫১৫, আর চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ৭ হাজার ২০১ মেট্রিক টন গম কেনা হচ্ছে। গত বছর ঠাকুরগাঁও থেকে ১২ হাজার ৩১০ মেট্রিক টন গম কেনার কথা থাকলেও কেনা হয়েছে ২৪ হাজার ৬১ মেট্রিক টন। আর ২০১৯ সালে সারা দেশে ৫০ হাজার মেট্রিক টন গম কেনা হয়। ঠাকুরগাঁও জেলা থেকে কেনা হয় ৬ হাজার ৬০৯ মেট্রিক টন গম। এই দুই বছরেও ঠাকুরগাঁও থেকে সর্বোচ্চ পরিমাণ গম কেনা হয়েছিল।

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনিরুল ইসলাম বলেন, এ জেলা গম উৎপাদনে সর্বোচ্চ আর খাদ্য বিভাগ অন্য জেলার তুলনায় এ জেলা থেকে গম কিনছেও বেশি।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আবু হোসেন বলেন, ‘এ এলাকার আবহাওয়া গম উৎপাদনের জন্য উপযোগী। পাশাপাশি কৃষি বিভাগের চেষ্টায় এখানে গম আবাদে কৃষকের আগ্রহ কমেনি। আমরা গম আবাদে শীর্ষস্থানটি ধরে রাখতে চাই।’

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন