স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ ভোররাত পৌনে চারটার দিকে সাজেকের হেডম্যান বাসভবনের পেছনে অবকাশ ইকোকটেজের দ্বিতীয় তলায় আগুন দেখা যায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই চারতলাবিশিষ্ট ইকোকটেজে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ওই কটেজে অন্তত ৫০ জন পর্যটক ঘুমাচ্ছিলেন। আগুনের খবর পেয়ে পর্যটকেরা কোনোরকমে নিজ নিজ ঘর থেকে বের হয়ে আসতে পারলেও কোনো কিছু রক্ষা করা সম্ভব হয়নি।

এ সময় আগুন ছড়িয়ে পড়ে পাশের মেঘছুট রিসোর্ট, সাজেক ইকোভ্যালি রিসোর্ট, মারুতি রেস্টুরেন্ট ও পাশের দুটি বসতঘরে। পরে স্থানীয় বাসিন্দা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

default-image

সাজেক রিসোর্ট-কটেজ মালিক সমিতির সভাপতি সুপর্ণ দেববর্মণ প্রথম আলোকে জানান, আগুনে তিনটি রিসোর্ট-কটেজ, একটি রেস্তোরাঁ ও দুটি বসতঘর পুড়ে গেছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও স্থানীয় লোকজনের তৎপরতায় ক্ষয়ক্ষতি অনেকটা কমেছে। এরপরও কমপক্ষে দুই কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। অগ্নিকাণ্ডের কারণ এখনো জানা যায়নি। তবে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন