বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এসএসসি পরীক্ষার তিন দিন আগে সাফিয়া অসুস্থ হয়ে যায়। এক বিষয়ের পরীক্ষা দেওয়ার পর তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজশাহী শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার অ্যাপেন্ডিসাইটিস ধরা পড়ে। অসুস্থ হওয়ার পরও সাফিয়া পরীক্ষা দিতে চায়। তাই অসুস্থ অবস্থায়ই পরীক্ষায় অংশ নেয় সাফিয়া। পরীক্ষা শেষে চিকিৎসকের পরামর্শে অস্ত্রোপচারের জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু ২৭ নভেম্বর অস্ত্রোপচার করার আগেই সে মারা যায়। এরপর আজ বৃহস্পতিবার এসএসসির ফল প্রকাশের পর জানা যায়, সাফিয়া সব কটি বিষয়ে এ প্লাস পেয়েছে।

সাফিয়ার বাবা শফিকুল ইসলাম বলেন, সাফিয়া তাঁদের একমাত্র সন্তান ছিল। তাঁদের মেয়ে লেখাপড়ায় খুব ভালো ছিল। সাফিয়াকে নিয়ে তাঁদের অনেক স্বপ্ন ছিল। অসুস্থ অবস্থায় পরীক্ষা দিয়েও সাফিয়া এত ভালো ফলাফল করেছে। এ ফলাফল তাঁদের আবারও কাঁদাল।

সাফিয়ার শিক্ষক ও মামা জাকিরুল ইসলাম বলেন, সাফিয়া অকালে সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেছে। সাফিয়ার ভালো ফলাফল করে শহরের ভালো কলেজে লেখাপড়ার আগ্রহ ছিল। আজ সবই স্মৃতি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন