default-image

রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের বিএনপির সাবেক সাংসদ ও আমলা আবু হেনা (৮১) আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শনিবার বেলা দেড়টায় রাজধানীর শ্যামলীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলেসহ অসংখ্য স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

পরিবার সূত্র জানায়, আবু হেনা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। শ্যামলীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার পর করোনা নেগেটিভ হয়ে বাড়িতে ফেরেন। এরপর তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে আবার ওই হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়। পরে সেখানেই তিনি শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন।

আবু হেনার ভাতিজা ব্যবসায়ী আক্তারুল আলম বলেন, তাঁর চাচার মরদেহ ঢাকা থেকে জন্মস্থান বাগমারায় আনা হবে। রোববার বাদ জোহর উপজেলার কাতিলা গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে জানাজা শেষে দাফন করা হবে। যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী তাঁর দুই ছেলে রুহের মাগফিরাত কামনা করে দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

আবু হেনার বাড়ি রাজশাহীর বাগমারার যোগীপাড়া কাতিলা গ্রামে। তিনি বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সচিব ও রাষ্ট্রদূত। এ ছাড়া কাস্টমসের গোয়েন্দা বিভাগের পরিচালকসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

অবসরের পর থেকে দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন পত্রিকায় তিনি অর্থনীতি বিষয়ে কলাম লিখতেন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে তৎকালীন রাজশাহী-৩ (বাগমারা-মোহনপুর) আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চেয়ে না পেয়ে বিএনপিতে যোগ দেন। তিনি ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরপর দুবার সাংসদ নির্বাচিত হন। সবশেষ ২০১৮ সালের নির্বাচনে আবারও বিএনপি থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বর্তমান সাংসদ এনামুল হকের কাছে হেরে যান।

মন্তব্য পড়ুন 0