default-image

সাবেক স্ত্রীর স্বামীকে মাদক দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন এক ব্যক্তি। পরে তিনি পুলিশকে বলেছেন, সাবেকের বর্তমান স্বামীর বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে গিয়েই এমন কাজ করেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে রাজশাহী নগরের চৌদ্দপাই এলাকায়। আটক ব্যক্তির নাম মনিরুল ইসলাম (২৯)। তিনি নগরের চন্দ্রিমা থানা এলাকার একটি মহল্লার বাসিন্দা। এমন কাণ্ড করায় পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে।

মনিরুলকে আটকের বিষয়টি আজ বুধবার দুপুরে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ। এতে বলা হয়, মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপকমিশনার আরেফিন জুয়েলের তত্ত্বাবধানে একটি দল গতকাল নগরে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করছিল। তখন মনিরুল পুলিশকে একটি গোপন তথ্য দেন। তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নগরের চৌদ্দপাই এলাকায় মাসুদ রানা (৩৪) নামের এক ব্যক্তির মোটরসাইকেল তল্লাশি করে গোয়েন্দা পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

এ সময় সাইলেন্সার পাইপের স্টিলের কভারের ভেতর থেকে ১০ গ্রাম হেরোইন ও আটটি ইয়াবা পাওয়া যায়। পুলিশ মাসুদকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পারে, তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদার বক্স হলের প্রহরীর কাজ করেন।

পুলিশ অনুসন্ধান করে জানতে পারে, অভিযুক্ত ব্যক্তির মাদকসেবন ও ব্যবসার সঙ্গে কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। এরপর তথ্যদাতা মনিরুলকে ডেকে এনে কৌশলে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে মনিরুল ষড়যন্ত্র করার কথা স্বীকার করেন। পুলিশকে তিনি বলেন, তাঁর সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক করে বিয়ে করেন মাসুদ। এ ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই তিনি পরিকল্পিতভাবে মাসুদের মোটরসাইকেলে মাদক রেখে পুলিশকে তথ্য দেন। পরে নিজেই ফেঁসে যান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন