বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মেজর জেনারেল শাফিনুল ইসলাম বলেন, সীমান্তে হত্যাকাণ্ড কোনোভাবেই কাম্য নয়। অনেক সময় সীমান্তে পরিস্থিতির শিকার হয়ে নিরপরাধ মানুষও হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে থাকতে পারেন। এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে বিজিবি ও বাংলাদেশ সরকার নানা উদ্যোগ নিচ্ছে।

বিজিবির ডিজি বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের যেসব এলাকায় সীমান্ত রয়েছে, ওই সব এলাকায় অনেকের আত্মীয়স্বজন বসবাস করেন। ফলে বিভিন্ন উৎসব-পার্বণ কিংবা অতি জরুরি প্রয়োজনে তাঁদের যাতায়াত আদিকাল থেকে চলে আসছে। কিন্তু এখন সীমানা হয়েছে। পাসপোর্ট-ভিসার প্রয়োজন হয়। ফলে ভিসা ছাড়া কেউ এক দেশ থেকে আরেক দেশের সীমানায় ঢুকলে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে বিবেচিত হচ্ছেন। এসব বিষয় বিজিবি যাচাই-বাছাই করছে। ভিসার বদলে যদি স্বল্পমেয়াদি অনুমতিপত্র চালু করা যায়, তাহলে অনুপ্রবেশ ও সীমান্ত হত্যাকাণ্ড অনেকটাই রোধ করা সম্ভব।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন