বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউএনও এ এম জহিরুল হায়াত প্রথম আলোকে বলেন, গত শনিবার রাতে আফ্রিকা থেকে এনামুল হক নামের ওই বাংলাদেশি যুবক সোনাগাজী উপজেলার আড়কাইম এলাকায় নিজ বাড়িতে এসেছেন। বুধবার দুপুরে বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষণিক স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ইছহাক খোকনসহ ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে তাঁর বাড়িতে কোভিড-১৯ লেখা লাল পতাকা টাঙানোসহ হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতের নির্দেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি উপজেলার কোথাও আর কেউ আফ্রিকা থেকে দেশে এলে দ্রুত তাঁর সম্পর্কে প্রশাসনকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করার জন্য বলা হয়েছে।

বগাদানা ইউপি চেয়ারম্যান ইছহাক খোকন প্রথম আলোকে বলেন, ইউএনওর নির্দেশে তাঁর ইউনিয়নে আফ্রিকা থেকে আসা ওই যুবকের বাড়ি লকডাউন করাসহ তাঁকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ সময় পরিবারের সদস্যদের তাঁর থেকে একটু আলাদা হয়ে থাকার জন্য বলেছেন। কোয়ারেন্টিনে থাকার সময় কোনো সহায়তার প্রয়োজন হলে তাঁকে জানাতে বলেছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা উৎপল দাশ প্রথম আলোকে বলেন, এ পর্যন্ত উপজেলায় ২ হাজার ৯৩০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৮৪৩ জনের করোনা পজিটিভ হয়। মারা গেছেন এক নারীসহ ১৩ জন। করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে তিনি সবাইকে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন