default-image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের অভিযোগে সোনারগাঁ থানা যুবদলের আহ্বায়ক ও জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইলে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূঁইয়ার বাড়ি থেকে তাঁকে আটক করা হয়।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, শহিদুর রহমান ও তাঁর সঙ্গীরা গোলাকান্দাইলের একটি বাড়িতে বসে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিএনপির নেতা তারেক রহমানের সঙ্গে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র করছিলেন। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সে বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শহিদুরকে আটক করে পুলিশ। এ সময় ওই বাড়ি থেকে একটি করে ল্যাপটপ ও প্রজেক্টর জব্দ করা হয়। আটক শহিদুরের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বিজ্ঞাপন

তবে পুলিশের অভিযোগ অস্বীকার করেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘আমার গোলাকান্দাইলের বাড়িতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় যুবদলের সঙ্গে জেলা যুবদলের মিটিং চলছিল। সেখানে ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের যুক্ত হওয়ার কথা ছিল। আমি অসুস্থ থাকায় সেখানে যেতে পারিনি। শুনেছি সেখান থেকেই শহিদুরকে আটক করেছে পুলিশ।’

জানতে চাইলে জেলা যুবদলের সভাপতি শহিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে জানান, যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলা যুবদলের সভা চলছিল। সভা চলার সময় সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্য নেতা–কর্মীরা সেখান থেকে চলে গেলেও শহিদুলকে আটক করে পুলিশ।

মন্তব্য পড়ুন 0