default-image

বাগেরহাটের রামপাল উপজেলা থেকে জবাই করা হরিণের ৪২ কেজি মাংসসহ বাবা ও ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। আজ মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার বগুড়া নদীর চর থেকে হরিণের মাংসসহ তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ দুপুরে বাগেরহাটের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মো. শাফিন মাহমুদ।

গ্রেপ্তার দুজন হলেন রামপাল উপজেলার গোবিনাথপুর গ্রামের আবদুর রহমান শেখ (৫২) ও তাঁর ছেলে মোস্তাকিন শেখ (২৭)। তাঁদের কাছ থেকে হরিণের তিনটি মাথাসহ ৪২ কেজি মাংস উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তার বাবা-ছেলের বিরুদ্ধে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনে রামপাল থানায় একটি মামলা হয়েছে। আজ দুপুরে তাঁদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত ৭২ ঘণ্টায় শরণখোলা ও মোংলা উপজেলা থেকে একটি হরিণের মাথা, ৬৭ কেজি মাংসসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে কোস্টগার্ড ও বন বিভাগ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মো. শাফিন মাহমুদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল রামপাল উপজেলার বগুড়া নদীর চর থেকে ৪২ কেজি হরিণের মাংসসহ বাবা ও ছেলেকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল সোমবার সুন্দরবন থেকে ফাঁদ পেতে অন্তত তিনটি চিত্রাহরিণ শিকার করেন এই শিকারিরা। পরে তাঁরা এই হরিণগুলো জবাই করে লোকালয়ে বিক্রির জন্য নিয়ে আসেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন। তবে হরিণের চামড়াগুলো তাঁরা কী করেছে, সে বিষয়ে পুলিশের কাছে কিছু স্বীকার করেনি। হরিণ শিকারের এই চক্রে আরও কয়েকজন জড়িত রয়েছে। তাদের ধরার চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন