বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের গণরুমেই থাকতে হবে জানিয়ে মুজিবুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীরা গণরুমে থাকলেও তাঁদের স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করা হবে। স্নাতকোত্তর পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ না হওয়ায় এবং বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা থাকায় অনেকেই হল ছাড়ছেন না। তাঁদের ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

১১ অক্টোবর ৪৯তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছাড়া বাকি সব ব্যাচের শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হয়। ২১ অক্টোবর থেকে শুরু হয় সশরীর ক্লাস-পরীক্ষা। তবে অন্যান্য ব্যাচের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে হলে উঠতে না পেরে ওই দিন মানববন্ধন করেন ৪৯তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তখন বলা হয়েছিল প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের শিগগির হলে ওঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন