default-image

ফেনীতে তিনটি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা যৌথ সংবাদ সম্মেলন করে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মিজার্কে ‘বিএনপি-জামায়াতের এজেন্ট’ বলে মন্তব্য করেছেন। তাঁদের অভিযোগ, সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ভাই বিএনপি-জামায়াতের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন। তাঁরা তাঁর চরিত্র নিয়েও মন্তব্য করেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় ফেনী শহরের একটি রেস্তোরাঁয় যৌথ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সোনাগাজী উপজেলার চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন, দাগনভূঞা উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগ সভাপতি দিদারুল কবির রতন ও ফেনী পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জহির উদ্দিন মাহমুদ।

বিজ্ঞাপন

লিখিত বক্তব্যে তিন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেলে রক্ষা পাবেন না কাদের মির্জা। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা, ওবায়দুল কাদের ও নিজাম হাজারীর বিরুদ্ধে আবার কথা বললে তাঁকে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে ফেনীতে মহাসড়ক অবরোধ করা হবে।’ তাঁদের অভিযোগ, ‘কাদের মির্জা যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের নামে বিদেশে পালিয়ে থাকা বিএনপির নেতা তারেক রহমান ও জামায়াতের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তারেক রহমানের সঙ্গে তিনি মিটিং করেন। ভবিষ্যতে বিএনপির নেতা মওদুদ আহমদের আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন নিশ্চিত করার শর্তে তিনি আওয়ামী লীগের নেতাদের সমালোচনা করছেন।’ তাঁরা তাঁকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার এবং দলীয় ও প্রশাসনিকভাবে তাঁর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ছাগলনাইয়া উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল, ফুলগাজী উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলিমসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন