পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আসাবুর শেখের সঙ্গে একই গ্রামের নূর ইসলাম শেখ এবং তাঁর তিন ছেলে টুটুল শেখ, কামাল শেখ ও শাহাজালাল শেখের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আজ সকাল পৌনে আটটার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এর একপর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজন রামদা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আসাবুর গুরুতর আহত করেন। পরে আশপাশের লোকজন আসাবুরকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সংঘর্ষের সময় শাহাজালাল শেখ (২৭) ও কালাম হোসেন (৩৫) আহত হয়েছেন। তাঁরা বর্তমানে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

দিঘলিয়া থানার পরিদর্শক তদন্ত রিপন কুমার সরকার প্রথম আলোকে বলেন, জমিজমা নিয়ে পারিবারিক কলহের কারণে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তাঁরা সবাই পরস্পরের আত্মীয়। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।