পুলিশ ও স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নয়ন মিয়া গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর রাতে বাড়িতে ফিরতে দেরি হওয়ায় পরিবারের লোকজন তাকে খুঁজতে বের হয়। কিন্তু কোথাও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

আজ সকাল সাতটার দিকে একই গ্রামের মনজু মিয়ার বাড়ির সামনে তার রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী হোসেন মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পূর্বশত্রুতার জেরে দুর্বৃত্তরা শিশুটিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে। তার গলায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন আছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।