এদিকে মাঝনদীতে ফেরি আটকে যাওয়ার সংবাদে এ সময় বাধ্য হয়ে আরিচা ঘাটে এনায়েতপুরি ও শাহ আলী নামক দুটি রো রো (বড়) ফেরি ঘাটে নোঙর করে রাখা হয়। কাজিরহাট ঘাট প্রান্তে কস্তুরী ও বেগম রোকেয়া নামের আরও দুটি কে-টাইপ ফেরি নোঙর করে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ সময় নদী পাড়ি দিতে না পেরে দুই ঘাটেই বেশ কিছু যানবাহন আটকে পড়ে। পরে আজ সকাল সাড়ে সাতটার পর থেকে ওই নৌপথে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে এ সময় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে সাবধানতার সঙ্গে ফেরি চলাচল করছিল।  

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক মো. সালাহ উদ্দিন বলেন, টানা ৯ দিন বিরতির পর কুয়াশায় গতকাল মধ্যরাত থেকে আরিচা-কাজিরহাট নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। দীর্ঘ সময় ফেরি বন্ধ থাকায় বেশ কিছু পণ্যবাহী যানবাহন পারাপার ব্যাহত হয়েছে। তবে এ সময় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে সতর্কতার সঙ্গে ফেরি চলাচল করেছে।

বিআইডব্লিউটিসি জানায়, কুয়াশার কারণে ১ জানুয়ারি থেকে আজ সকাল পর্যন্ত দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে পায় ৬০ ঘণ্টা ও আরিচা-কাজিরহাট নৌপথে প্রায় ৮৬ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল।