৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ শনিবার দুপুরে তাঁকে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়েছে। শনিবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় এ তথ্য জানায়।

তাঁর ধারণা ছিল, এত রাতে ঢাকা থেকে পুলিশ তাঁর বাড়িতে আসবে না।

সুধারাম থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ওই ব্যক্তি ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে জানান, তাঁর স্ত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ৯৯৯ থেকে খবর পেয়ে সুধারাম থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তারা গিয়ে জানতে পারে, এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। তখন ফোনদাতা ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি জানান, তিনি মজা করার জন্য ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়েছেন। তাঁর ধারণা ছিল, এত রাতে ঢাকা থেকে পুলিশ তাঁর বাড়িতে আসবে না। তখন পুলিশ তাঁকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, আটক ওই ব্যক্তি এর আগেও ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে মিথ্যা তথ্য দিয়ে পুলিশকে হয়রানি করেছিলেন। তাই তাঁকে আপাতত ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত শেষে পরবর্তী সময়ে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।