স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, লাঠির রাজনীতি আওয়ামী লীগ করে না। গ্রেনেড হামলার রাজনীতি, সিরিজ বোমার রাজনীতি, বিদ্যুৎ চুরির রাজনীতি, হাওয়া ভবনের রাজনীতি, পেট্রলবোমার রাজনীতি আওয়ামী লীগ করে না। আওয়ামী লীগ করে উন্নয়নের রাজনীতি।

এই সরকার কোনো কিছুর দাম বাড়ায়নি বলে উল্লেখ করে জাহিদ মালেক বলেন, বিশ্ববাজারে দাম বাড়ায়, বাংলাদেশে দাম বেড়েছে। কারণ, তিন গুণ দাম দিয়ে ক্রয় করতে হচ্ছে এবং সবকিছুর খরচও তিন গুণ বেড়েছে। কাজেই দাম বেড়েছে। শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা বিশ্বে দাম বেড়েছে। কিন্তু আজ বিএনপি জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, পৌরসভা হচ্ছে একটি জেলার ড্রয়িংরুম। কাজেই ড্রয়িংরুমের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। অর্থাৎ পৌরসভার একটা দক্ষ ও শক্তিশালী সংগঠনই পারে পুরো জেলাকে নিয়ন্ত্রণ করতে। সুতরাং পৌরসভার দিকে খেয়াল রাখতে হবে। বঙ্গবন্ধু মন্ত্রিত্ব নেননি। তিনি দলকে সুসংগঠিত করতে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দলের জন্য কাজ করে দলকে শক্তিশালী করেছিলেন।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোনায়েম খানের সভাপতিত্বে ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মহিউদ্দিন, সহসভাপতি আবদুল মজিদ, সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলতানুল আজম খান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গাজী কামরুল হুদা প্রমুখ। পরে দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে মানিকগঞ্জে পৌর আওয়ামী লীগের ৯টি ওয়ার্ডের প্রতিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।