ভুক্তভোগী প্রতিবেশীর নাম এস এম ইকরাম হোসেন (৪০)। তিনি আকুবদণ্ডী ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সৈয়দ আবু নাছেরের ছেলে।

ইকরাম হোসেনের অভিযোগ, ‘পেয়ার মোহাম্মদ তাঁর জায়গায় বাউন্ডারি নির্মাণ করছেন, যা আমার জায়গার মধ্যে ঢুকে পড়েছে। এতে আমি বাধা দিলে তিনি ঘরে গিয়ে পিস্তল এনে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে দুটি গুলি ছোড়েন। আমি ভয়ে দৌড়ে থানায় গিয়ে আশ্রয় নিই। পরে পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে আসি। ততক্ষণে পেয়ার মোহাম্মদ পালিয়ে যান।’

জমি নিয়ে কথা–কাটাকাটির জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে বলছেন পেয়ার মোহাম্মদের স্ত্রী লায়লা বেগম। তিনি বলেন, ‘গুলি করাটা দুঃখজনক। মানুষের সঙ্গে ঝগড়া হতেই পারে, তাই বলে কি সে গুলি করবে? এসব দেখে আমি নিজেও হতভম্ভ।’ পেয়ার মোহাম্মদ কোথায় আছেন জানতে চাইলে লায়লা বেগম বলেন, ‘এ মুহূর্তে আমি জানি না। তাঁর মোবাইল বন্ধ। যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না।’

এ ঘটনায় ইকরাম হোসেন বাদী হয়ে থানায় মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন বোয়ালখালী থানার উপপরিদর্শক আলমগীর। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গুলির খোসা উদ্ধার করেছি। পেয়ার মোহাম্মদ পালিয়ে গেছেন। তাঁকে আটকের চেষ্টা করছি।’