দুদকের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) এ কে এম নুরুউদ্দীন আহমেদ রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আরেক আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাঁকে খালাস দেওয়া হয়েছে। তিনি হলেন পিজিসিবি খুলনার নিরাপত্তা পরিদর্শক (বর্তমানে ঢাকার রামপুরার আফতাব নগরের ন্যাশনাল লোড ডেসপ্যাচ সেন্টারে কর্মরত) মো. আনোয়ার হোসেন। রায় ঘোষণার সময় মামলার তিন আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। দণ্ডিত দুজনকে রায় ঘোষণার পর বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার নথি সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত লক্ষ্মী নারায়ণ ভুঁয়া বরিশাল গ্রিড সংরক্ষণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী থাকার সময় পারস্পরিক যোগসাজশে ঠিকাদার মো. আতাউর রহমানের সই জাল করে ১ কোটি ৩৬ লাখ ৬৭ হাজার ৫৪৭ টাকা মূল্যের মালামাল আত্মসাৎ করেন। এ ঘটনায় দুদকের বরিশাল জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের উপপরিচালক মতিউর রহমান বাদী হয়ে ২০১৭ সালের ২০ আগস্ট তিনজনকে আসামি করে ভান্ডারিয়া থানায় একটি মামলা করেন। ২০১৮ সালের ২১ জানুয়ারি তিনজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা পড়ে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন