চলতি বছরের মে মাসের শেষের দিকে ওই পদসহ আরও কয়েকটি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল খুলনা কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয়। ২০১৫ সালের আবেদনটি ছিল হাতে লেখা। তবে সম্প্রতি যে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে, সেটিতে আবেদন করতে হয়েছে অনলাইনে। ২০১৫ সাল ও সম্প্রতি আবেদন করা চালক ও সিপাই পদের নিয়োগে শারীরিক সক্ষমতা পরীক্ষা একই দিন অনুষ্ঠিত হবে।

খুলনা কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হওয়ার পর ওই কার্যালয়ে অস্থায়ীভাবে (নো ওয়ার্ক, নো পে) কর্মরত ব্যক্তিরা আদালতে মামলা করেন। পরে আদালত ওই নিয়োগপ্রক্রিয়া স্থগিত করার নির্দেশ দেন। এ কারণে ওই সময় নিয়োগপ্রক্রিয়া শেষ করতে পারেনি কার্যালয়টি। মামলার কারণে ওই–সংক্রান্ত সব নিয়োগই আটকে ছিল। গত বছর ওই মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। এরপর আবার নিয়োগপ্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। ২০১৫ সালে সিপাই পদে হাজার হাজার আবেদনের মধ্য থেকে ছয় হাজারের মতো আবেদন বাছাই করে রেখেছিল নিয়োগ কমিটি। আর চলতি বছরের বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করেছেন ১৫ হাজারেরও বেশি।

খুলনা কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার ও নিয়োগ কমিটির সভাপতি মো. তাসনিমুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, আগে যাঁরা আবেদন করেছিলেন, বর্তমান নিয়োগের সময়ও তাঁদের পরীক্ষার প্রবেশপত্র পাঠানো হয়েছে। যেহেতু তাঁরা ওই সময় আবেদন করেছিলেন, তাই পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার অধিকার তাঁদের আছে। কেউ ভালো করলে বয়স না থাকার পরও তাঁর চাকরি হয়ে যাবে। ২০১৫ সালের আবেদনকারীদের পরীক্ষার প্রবেশপত্র ডাক বিভাগের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। আর সম্প্রতি আবেদন করা প্রার্থীরা অনলাইনের মাধ্যমে প্রবেশপত্র তুলতে পারছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন