পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, পাহাড়ি ও রোহিঙ্গা–অধ্যুষিত এলাকা রইক্ষ্যংয়ের দুই তরুণ তাঁদের এলাকা থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে কাঞ্জরপাড়া এলাকায় কোমরে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘোরাঘুরি করছিলেন। উদ্দেশ্য খারাপ মনে হওয়ায় স্থানীয় জনতা তাঁদের আটক করেন। তাঁদের কাছে অস্ত্র থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হলে স্থানীয় লোকজন কৌশলে পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এলে স্থানীয় লোকজন দুজনকে সোপর্দ করেন।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, অস্ত্রগুলো রোহিঙ্গাদের হতে পারে। তাঁরা বহন করছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর মধ্যে ওই এলাকায় গত কয়েক মাসে স্থানীয় লোকজনকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের ঘটনা ঘটায় তাঁদের সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়।

হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) রোকনুজ্জামান জানান, তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে কেন ঘোরাঘুরি করছেন? তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর আজ রোববার দুপুরে কক্সবাজার আদালতে হাজির করা হবে।