পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, আজ সকালে মোহাম্মদ আলী তার বাবা ইউসুফ আলীকে বিস্কুট কিনে দিতে বলে। আজ দুপুর ১২টার দিকে ইউসুফ আলী ছেলেকে নিয়ে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে কান্দিগাঁও বাজারে বিস্কুট কেনার জন্য যান। বিস্কুট কিনে দেওয়ার পর হঠাৎ মোহাম্মদ আলী দৌড়ে মহাসড়ক পারাপার হওয়ার চেষ্টা করে। ঠিক তখন একটি পিকআপ ভ্যান দ্রুতগতিতে আসতে দেখে ছেলেকে বাঁচাতে দৌড়ে মহাসড়কে চলে আসেন ইউসুফ আলী।

ওই সময় সিলেটগামী ওই পিকআপ ভ্যান ইউসুফ আলী ও তাঁর ছেলে মোহাম্মদ আলীকে চাপা দেয়। এতে মোহাম্মদ আলীর মাথা থেঁতলে ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয়। এ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত ইউসুফ আলীকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনার পর পিকআপ ভ্যানটি দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে গাছ ফেলে অবরোধ করে রাখেন স্থানীয় লোকজন। এতে উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মহাসড়কের যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

কান্দিগাঁও গ্রামের বাসিন্দা ও নিহত ব্যক্তির আত্মীয় সোলাইমান মিয়া বলেন, ২৪ জুলাই চাকরি করার জন্য ইউসুফ আলীর ব্রুনাইয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দুর্ঘটনায় পরিবারের স্বপ্ন ভেঙে গেল।

শেরপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরিমল চন্দ্র দেব বলেন, শিশু মোহাম্মদ আলীকে বিস্কুট কিনে দেওয়ার পর সে দৌড়ে মহাসড়ক পার হওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় ছেলে বাঁচাতে গিয়ে ইউসুফ আলীও পিকআপ ভ্যানের চাপায় মারা যান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন