ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক মফিজুল ইসলাম জানান, ভুক্তভোগী শিশুর মা–বাবার ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর অন্যত্র বিয়ে হয়ে গেছে। সে নানি, খালা-খালুর সঙ্গে শহরের মাসদাইর এলাকার ভাড়া বাসায় থাকত। গতকাল দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে ওই শিশুর নানি ও খালা নাকের ড্রপ কেনার জন্য ওষুধের দোকানে যান। তখন বাসায় একা ছিল ওই শিশু ও তার খালু। এ সময় মনির ওই শিশুকে ধর্ষণ করলে তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে মনিরকে ধরে গণপিটুনি দেন।

মফিজুল ইসলাম আরও বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ রাত দুইটার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই শিশুর খালুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় ওই শিশুর মামা বাদী হয়ে শুক্রবার দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন