সাদ অনুসারীদের মিডিয়া সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকা মো. সায়েম প্রথম আলোকে এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মাওলানা সাদ কান্ধলভিকে আমির হিসেবে মেনে নেওয়া নিয়ে মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীদের মধ্যে বিরোধ চলছে। এই বিরোধের জেরে ২০১৭ সাল থেকে মাওলানা সাদ কান্ধলভিকে ইজতেমায় আসতে দেওয়া হচ্ছে না। সরকারিভাবেও নিষেধ করা হচ্ছে। এ কারণে এবার মাওলানা সাদের পরিবর্তে ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন তাঁর তিন ছেলে ও এক জামাতা। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তাঁরা ইজতেমা মাঠে পৌঁছান।

এদিকে ইজতেমায় যোগ দিতে গত বুধবার রাত থেকেই তুরাগতীরে মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। তবে আজ জুমার নামাজে যোগ দিতে সকাল থেকে মুসল্লিদের সবচেয়ে বেশি ভিড় দেখা গেছে। কেউ বাস, কেউ মোটরসাইকেল আবার কেউবা হেঁটে রাজধানী ঢাকা ও এর আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসছেন ইজতেমা মাঠের দিকে।

এর আগে আজ বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও ঢাকা-আশুলিয়া সড়ক ঘুরে জুমার নামাজে অংশ নিতে আসা মুসল্লিদের ঢল দেখা গেছে। ছুটির দিন হওয়ায় আজ অনেকেই দল বেঁধে ইজতেমা মাঠে নামাজ আদায় করতে আসছেন।

তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধের কারণে এবারও বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে আলাদাভাবে। মাওলানা সাদ কান্ধলভির বিরোধী হিসেবে পরিচিত মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীরা ইজতেমা পালন করেন ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি। আজ থেকে শুরু হয়েছে মাওলানা সাদ কান্ধলভির অনুসারীদের ইজতেমা। তাঁদের ইজতেমা চলবে আগামী রোববার পর্যন্ত।