খায়রুজ্জামান আরও বলেন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর উন্নয়ন প্রকল্পের নামকরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই প্রকল্পের মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মানুষের উন্নয়ন, নারীদের উন্নয়ন ও ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটছে। তিনি বলেন, রাজশাহী শিক্ষা নগরী হিসেবে দেশব্যাপী পরিচিত। রাজশাহীর শিক্ষাক্ষেত্র এগিয়ে নিতে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হচ্ছে। আরও দুটি সরকারি স্কুল প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে। এ ছাড়া বিভিন্ন বিশেষায়িত স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে হলিক্রস স্কুল অ্যান্ড কলেজ যাত্রা শুরু করেছে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আবদুল খালেক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য গোলাম সাব্বির সাত্তার, সাবেক প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপিকা জিনাতুন নেসা তালুকদার, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি নূর কুতুব উল আলম, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম শরিফ উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, রাজশাহী মহানগরের সভাপতি অধ্যাপক নুরুল আলম, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য শামসুদ্দিন খোকন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য শাহ আজম শান্তনু, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালসহ বিশিষ্ট নাগরিক ও সুধীজনেরা।