আজ শনিবার সকাল ছয়টায় শুরু হওয়া ধর্মঘটের পর সকাল সাড়ে সাতটা থেকে সাড়ে আটটা পর্যন্ত সিলেট বাসস্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আজ দুপুরে অনুষ্ঠিত হবে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ। বিএনপির নেতাদের দাবি, সমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করতে সরকারের পক্ষ থেকে পরিবহন সংগঠনগুলোকে দিয়ে ধর্মঘট পালন করানো হচ্ছে। এর আগে গত বুধবার প্রথমে দূরপাল্লার বাসের পরিবহন ধর্মঘট ডাক দিয়েছিল সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। পরে বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলায় সব ধরনের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় জেলা পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। এর আগে হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জ জেলায় বাস ধর্মঘট ডাকা হয়।

পরিবহন সংগঠনের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে সিলেটের সব কটি পাথর কোয়ারি থেকে পাথর উত্তোলনের অনুমতি, সিএনজিচালিত অটোরিকশার নতুন রেজিস্ট্রেশন প্রদান, সিলেটের লামাকাজী ও শ্যাওলা সেতুতে টোল আদায় বন্ধ, হাইওয়েতে টমটম ও নছিমন চলাচল বন্ধ করা। আজ সকাল ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত এ ধর্মঘট চলার কথা।

এর আগে খুলনা, বরিশাল, রংপুর ও ফরিদপুরে বিএনপির সমাবেশের আগে তিন চাকার যান বন্ধের দাবিতে ধর্মঘট ডেকেছিল স্থানীয় মালিক সমিতি।

সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. জিয়াউল কবীর বলেন, নতুন করে সিএনজিচালিত অটোরিকশার রেজিস্ট্রেশন বন্ধ এবং সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গ্রিল লাগানোর দাবিতে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। ১২ দিনেও কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় ধর্মঘট পালন করা হচ্ছে। এখানে বিএনপির সমাবেশের সঙ্গে কোনো মিল নেই।