প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ সকাল সাড়ে ১০টা থেকে জেলা ও মহানগর যুবদলের নেতা-কর্মীরা ফরিদপুর জজ কোর্ট চত্বরে সমবেত হতে থাকেন। এ সময় জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আবজাল হোসেন খান ও সৈয়দ জুলফিকার হোসেন; জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, সহসভাপতি কে এম জাফর, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সম্পাদক শামীমুল ইসলাম তালুকদার; জেলা ছাত্রদলের সহসভাপতি হেমায়েত হোসেনসহ শতাধিক নেতা-কর্মী জজ কোর্ট চত্বরে সমবেত হন। ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সদস্যরাও কোর্ট চত্বর এলাকায় আসেন।

নেতা-কর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল করার প্রতিশ্রুতি দিলেও পুলিশ শেষ পর্যন্ত মিছিল করার অনুমতি দেয়নি।

সমবেত নেতা-কর্মীরা মিছিল করে কোর্ট চত্বর থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে বাধা দেয় পুলিশ। এ সময় পুলিশের সঙ্গে নেতা-কর্মীদের বাদানুবাদ হয়। নেতা-কর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল করার প্রতিশ্রুতি দিলেও পুলিশ শেষ পর্যন্ত মিছিল করার অনুমতি দেয়নি। পরে যুবদলের নেতা-কর্মীরা জজ কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে পাশের স্বাধীনতা চত্বরে যান। সেখানে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘পুলিশের বাধার কারণে আমরা মিছিল করতে পারিনি। আমাদের সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে পুলিশের তর্কাতর্কি হয়েছে। পুলিশ ধাক্কাধাক্কিও করেছে। শেষ পর্যন্ত আমরা মিছিল করতে পারিনি।’

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাকিবুল ইসলাম বলেন, সীমিতভাবে যুবদলের কর্মসূচি পালনে বাধা দেওয়া হয়নি। তবে কেউ যদি উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করে রাষ্ট্রের সম্পত্তির ক্ষতি করতে চায়, তা পুলিশের প্রতিহত করার কথা।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন