সাধারণ শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, ক্যাম্পাসের ঠিক সামনে সবুজ বাংলা রেস্টুরেন্ট নামের একটি রেস্তোরাঁ রয়েছে। ওই রেস্তোরাঁর কর্মচারী সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র নুর মোহাম্মদ শৈশবের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের একপর্যায়ে মারধর করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ শিক্ষার্থীরা রেস্তোরাঁর সামনে জড়ো হন। এ সময় শিক্ষার্থীরা রেস্তোরাঁর কলাপসিবল গেট বন্ধ করে কর্মচারীদের অবরুদ্ধ করে রেখে প্রতিবাদী স্লোগান দেন।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থী, ওই রেস্তোরাঁ পরিচালনাকারী ও কর্মচারীদের নিয়ে বৈঠকে বসেছে।

শিক্ষার্থীদের কর্মসূচির খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও মহানগরের জালালাবাদ থানা-পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা রাত নয়টার দিকে কর্মসূচি স্থগিত রেখে সরে যান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ মো. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল কমিটি ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থী, ওই রেস্তোরাঁ পরিচালনাকারী ও কর্মচারীদের নিয়ে বৈঠকে বসেছে। দ্রুতই এটি সমাধান হবে।

এ বিষয়ে মহানগরের জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজমুল হুদা খান প্রথম আলোকে বলেন, আপাতত রেস্টুরেন্ট বন্ধ রাখা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন মালিকপক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসেছে। সেখানে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, এর আলোকে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।