পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল বিকেলে প্রতিবেশী এক নারীর সঙ্গে ঝিনাইদহ শহরে আসেন চম্পা। এরপর শহরের পায়রা চত্বরে অনুষ্ঠিত জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।

ওই অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার জন্য চম্পা ও তাঁর প্রতিবেশী ভ্যানে ওঠেন। সন্ধ্যা সাতটার দিকে শহরের মডার্ন মোড় এলাকায় পৌঁছালে ভ্যানের চাকার সঙ্গে চম্পার ওড়না পেঁচিয়ে যায়। এতে তিনি ছিটকে রাস্তার ওপর পড়ে গুরুতর আহত হন। তৎক্ষণাৎ স্থানীয় লোকজন চম্পাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত নয়টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নাঈম সিদ্দিকী বলেন, ওই নারী গলায় ও মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে, এ কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

সদর থানার উপপরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন মামুন বলেন, এ দুর্ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ নেই। পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।