নিহত কামরুল শেখ (৪০) উপজেলার পুরুলিয়া ইউনিয়নের পুরুলিয়া গ্রামের রশিদ শেখের ছেলে। তিনি চাঁচুড়ী বাজারে জুতার ব্যবসা করতেন।

এ হত্যার ঘটনায় ৩১ জনকে আসামি করে কালিয়া থানায় হত্যা মামলা হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন চাঁচুড়ী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা, আওয়ামী লীগ নেতা মোল্লা ইমদাদুল হক, পুরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, ব্যবসায়ী মুন্সী লুৎফার রহমান, সাবেক ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফুল বারী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, চার আসামি গ্রেপ্তার হলেও মূল হোতারা এখনো গ্রেপ্তার হননি। তাঁদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে শাস্তি দিতে হবে।

default-image

স্থানীয় লোকজন জানান, সম্প্রতি পুরুলিয়া পূর্বপাড়া জামে মসজিদের সভাপতি পরিবর্তন করা হয়। এ নিয়ে বিরোধের জেরে গত ৩০ জুন ভোরে পুরুলিয়া গ্রামে ঘুমন্ত অবস্থায় কামরুল শেখকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ সময় হামলায় ওই পরিবারের আরও পাঁচজন গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় নিহত কামরুলের ভাই জাকির শেখ ৩১ জনকে আসামি করে কালিয়া থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

কালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ তাসমিম আলম বলেন, এ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত চারজন গ্রেপ্তার হয়েছেন। অন্যদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন