গণস্বাক্ষর কর্মসূচি চলবে ৯ নভেম্বর পর্যন্ত। এতে অংশ নেওয়া কয়েক শিক্ষার্থী বলেন, ১৬ দফা দাবি বাস্তবায়ন করলে শিক্ষার্থীদের অধিকার নিশ্চিত হবে। এ কারণে তাঁরা এ কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার থেকে ক্লাস শুরু করা নবীন শিক্ষার্থীদেরও কর্মসূচিতে দেখা গেছে। তাঁরা আগ্রহ নিয়ে দাঁড়িয়ে রাকসু সম্পর্কে শুনছিলেন।

তাঁদের একজন রাকিব হাসান বলেন, তাঁরা ডাকসু নির্বাচন সম্পর্কে শুনেছেন। সেবার নির্বাচন হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ধরনের সংগঠন আছে, তাঁরা জানতেন না। এখানে এসে জানতে পারলেন।

রাকসু আন্দোলন মঞ্চের সমন্বয়ক আবদুল মজিদ প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষার্থীদের অধিকার নিশ্চিতে তাঁরা ১৬ দফা দাবি নিয়ে আন্দোলন করছেন। এর অংশ হিসেবে আজ থেকে শুরু হলো গণস্বাক্ষর কর্মসূচি। তাঁরা এটা সাত দিন চালাবেন। গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে প্রথম দিন ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন। ক্যাম্পাসে আসা নতুন শিক্ষার্থীরা তাঁদের কাছে আসছেন। নানা বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন। তাঁরাও জানাচ্ছেন।

আবদুল মজিদ আরও বলেন, পরের সপ্তাহে এক দিন তাঁরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবেন। এ ছাড়া শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের নিয়ে সেমিনারের আয়োজন করবেন। দাবি আদায় না হলে নভেম্বরের শেষের দিকে রাকসুর সাবেক নেতাদের নিয়ে বড় ধরনের ছাত্রসমাবেশ করা হবে।