পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে দরজা খোলা পেয়ে ওই নারীর ঘরে ঢোকেন পাঁচ যুবক। এ সময় তাঁদের মধ্যে দুজন তাঁকে ধর্ষণ করেন এবং বাকি তিনজন ধর্ষণে সহায়তা করেন।

এরপর তাঁকে হত্যার ভয় দেখিয়ে আরও দুই স্থানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হয়। আজ ওই নারী সীতাকুণ্ড থানায় এসে ওই পাঁচ যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে জানিয়ে সীতাকুণ্ড সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল করিম প্রথম আলোকে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে ২৩ জুলাই তৈরি পোশাক কারখানায় চাকরি দেওয়ার নাম করে উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের ফৌজদারহাট বায়েজিদ সংযোগ সড়কের ২ নম্বর সেতু নিচে নিয়ে এক নারীকে দল বেঁধে ধর্ষণ করেন চার যুবক। ওই ঘটনায় ইমতিয়াজ নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন