স্বজনেরা জানান, পায়েল মিয়া দীর্ঘদিন ধরে কুয়েতে চাকরি করতেন। দুই মাসের ছুটি নিয়ে দেশে এসে মাসখানেক আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলায় বিয়ে করেছেন। আজ সকালে শ্বশুরবাড়ি থেকে নিজের ভাতিজা জামির হোসেনকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে বাড়িতে ফিরছিলেন।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সকাল ১০টার দিকে সদর উপজেলার সুলতানপুর এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল চালক পায়েল মিয়া নিহত হন। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত জামির হোসেনকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

খাড়েরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও দেলী গ্রামের বাসিন্দা মো. খোকন মিয়া বলেন, বিয়ের এক মাসের মধ্যে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাড়িতে ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় পায়েলের মৃত্যু হয়। ভাতিজা জামিরও গুরুতর আহত। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হাতিহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকেন্দ্র বসু বলেন, মোটরসাইকেল দুঘর্টনায় পায়েল মিয়া নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহতের লাশ উদ্ধার করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে।