হানিফের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বরমী বাজারের কেন্দুয়া বাসস্ট্যান্ডে হানিফের ফলের দোকান ছিল। নিজের দোকানের জন্য মাওনা থেকে আম কিনে ফিরছিলেন তিনি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কায়েত পাড়া গ্রামের বাসিন্দা মো. শামসুল হক প্রথম আলোকে বলেন, শ্রীপুর থেকে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা বরমী বাজারের দিকে যাচ্ছিল। ওই অটোরিকশায় হানিফ মৃধাসহ চার যাত্রী ছিলেন। অটোরিকশাটি কায়েতপাড়া এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ডাম্প ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশাটি দুমড়েমুচড়ে দেয়। এ সময় আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে হানিফকে ট্রাকের নিচ থেকে উদ্ধার করেন। পরে হানিফসহ অন্যদের হাসপাতালে নেওয়ার পথে হানিফের মৃত্যু হয়।

আহত ব্যক্তিদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় বলে জানান কায়েত পাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও আরেক প্রত্যক্ষদর্শী জাহাঙ্গীর আলম। তবে তাঁদের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, দুর্ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনাকবলিত ডাম্প ট্রাক ও অটোরিকশাটি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন