ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাতে পঞ্চম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীর (১৫) সঙ্গে একই গ্রামের এক যুবকের (২৬) বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। ওই ছাত্রীর পরিবার বিষয়টি গোপন করার চেষ্টা করেছিল।

তবে স্থানীয় কয়েকজন যুবক বিষয়টি মুঠোফোনে কলমাকান্দার ইউএনও আবুল হাসেমকে জানান। পরে আবুল হাসেম পুলিশ নিয়ে ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসান।

ইউএনও আবুল হাসেম প্রথম আলোকে বলেন, গোপনে বাল্যবিবাহের আয়োজন করায় কনের বাবাকে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মুচলেকায় মেয়ের বাবা অঙ্গীকার করেছেন, মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত তাকে বিয়ে দেবেন না। একই সঙ্গে মেয়ের পড়াশোনা চালিয়ে যাবেন।