মামলায় নাম উল্লেখ করা ৯ আসামি হলেন হাজীপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. ইমান হোসেন (৩৫), তাঁর কর্মী ফয়সাল খান (২১), ফারুক খান (৩০), মোবারক মিয়া (৩০), খোকন মিয়া (২৫), রোকন মিয়া (২৩), শাহ আলম মিয়া (৩২), আহাদ মিয়া (১৯) ও পাপন ভূঁইয়া (২২)।

আজ দুপুরে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মামলার পর ইউপি সদস্য মো. ইমান হোসেন ও ফয়সাল খানকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। বাকি আসামিদের মধ্যে পাঁচজন আদালত থেকে জামিন এনে মামলার বাদী ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছেন। এ ছাড়া দুই আসামি এখনো পলাতক। তাঁদের অত্যাচারে হাজীপুর ইউনিয়নের বদরপুরসহ বিভিন্ন গ্রামের মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে গেছে। তাঁদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয় মানববন্ধনে।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী তমিজ উদ্দিন, মামলার বাদী জামাল উদ্দিন, আহত ছানিমের স্বজন বিজি রশীদ নওশের, হাজীপুরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আলতাফ হোসেন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য কামাল হোসেন প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন