অস্বাভাবিক দাম বেড়েছে শুকনা মরিচের। এক মাস আগে রাজাবাজারে ভালো মানের শুকনা মরিচ প্রতি কেজি ৩৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। এখন ভালো মানের এক কেজি শুকনা মরিচের দাম হয়েছে ৪৫০ টাকা। এক মাস আগের ৫০ টাকা কেজি আদার দাম দ্বিগুণ হয়ে আজ শুক্রবার ১০০ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে। খুচরা বাজারে এক কেজি আদার দাম উঠেছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়।

শহরের ফতেহ আলী খুচরা বাজারের একটি দোকানে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গরমমসলা কিনতে আসা ক্রেতা শহরের সূত্রাপুর এলাকার জাকির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, এক মাস আগে আধা কেজি জিরা কিনেছিলাম ১৮০ টাকায়। এখন সেই আধা কেজি জিরা কিনতে গুনতে হচ্ছে ২৮০ টাকা। অন্য মসলার বাজারেরও একই অবস্থা।

রাজাবাজার মোকাম থেকে আমদানি করা মসলা রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেটসহ সারা দেশে সরবরাহ হয় বলে জানিয়েছেন মসলার বৃহৎ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান রাজভান্ডারের মালিক ও রাজাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পরিমল প্রসাদ।

তিনি প্রথম আলোকে বলেন, এই মোকামে বেশির ভাগ মসলা আসে ভারত, মিয়ানমার, ভুটান, নেপাল ও চীন থেকে। ডলারের দাম অস্থিতিশীল হওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরে টাকা দিয়েও ডলার মিলছে না। এ সংকটের মধ্যেই বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো এলসি খোলা বন্ধ করেছে। এতে মসলার আমদানি প্রায় বন্ধ। সরবরাহঘাটতিও দেখা দিয়েছে। সব মিলিয়ে মসলার বাজার এখন বেশ ‘গরম’।