চর জব্বর থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাকির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, অপহরণের শিকার ওই কিশোরীর সঙ্গে অভিযুক্ত তরুণের মুঠোফোনে পরিচয়ের সূত্র ধরে কথাবার্তা হতো। ১০ জুলাই কিশোরী নিজ বাড়ি থেকে নানার বাড়িতে যাওয়ার পথে অপহরণের শিকার হয়। অভিযুক্ত তরুণ নাজিম তাঁকে অপহরণ করে আত্মীয়ের বাড়িতে আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করেন অভিযোগে মামলা হয়েছে।

পরিদর্শক জাকির হোসেন বলেন, কিশোরীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আজ সকালে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া গ্রেপ্তার তরুণকে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন